অবিলম্বে লতিফ সিদ্দিককে গ্রেফতার করতে হবে : মাওলানা মাহফুজুল হক

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক বলেছেন, সরকার স্বঘোষিত মুরতাদ লতীফ সিদ্দিকীকে পবিত্র রমজান মাসে মুক্তি দিয়ে রমজানের পবিত্রতা নষ্ট করেছে এবং নবী প্রেমিক জনতার কলিজায় আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। সরকার লতিফ সিদ্দিকীকে মুক্তি দিয়ে ইসলাম বিরোধী শক্তি নবীর দুশমন নাস্তিক মুরতাদদের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। অবিলম্বে মুরতাদ লতীফ সিদ্দিকীেেক গ্রেফতার করে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রদান করুন অন্যথায় দেশের ঈমানদার তৌহিদী জনতা তাদের নবী সা. এর ইজ্জত রক্ষার্থে প্রয়োজনে বুকের তাজা রক্ত দিতে প্রস্তুত। মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকী প্রকাশ্য ঘুরে বেড়ালে বাংলাদেশের তাওহীদি জনতা চেয়ে থাকবে না।

তিনি আরো বলেন, নবীর ইজ্জত রক্ষার করা প্রতিটি মুসলমানের উপর ফরজ। সুতরাং ৯০% মুসলমানের দেশে নাস্তিক মুরতাদরা ইসলাম ও মহানবী সা. এর বিরুদ্ধে কথা বলবে আর সরকার তাদেরকে সহযোগিতা করবে তা কোনোভাবে মেনে নেওয়া যায় না।

তিনি আজ মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেফতারের দাবিতে আজ মঙ্গলাবার দুপুর ২টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্বক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

মহানগর সভাপতি মাওলানা এনামুল হক নূরের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আবু সাঈদ নোমান, প্রশিক্ষণ সম্পাদকমাওলানা ড. জি এম মেহেরুল্লাহ অফিস ও প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, ঢাকা মহানগর সহ-সভাপতি মাওলানা নেয়ামাতুল্লাহ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন ইউসুফ,সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মুমিন, মাওলানা সানাউল্লাহ, মাওলানা আতিক উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা কামালুদ্দীন ফারুকী, হাফেজ শামসুল আলম, বায়তুলমাল সম্পাদক মাওলানা আসাদুল্লাহ সাদী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা শামসুল আরম প্রমূখ।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।